রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:১০ পূর্বাহ্ন

ইসরায়েলে বসতি স্থাপনকারীদের ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞার হুমকি বাইডেনের

নিউজ ডেস্কঃ প্রথমবারের মতো ইসরায়েলে বসতি স্থাপনকারীদের ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ওয়াশিংটন পোস্টে প্রকাশিত এক নিবন্ধে তিনি লিখেছেন, ইসরায়েলের বসতিস্থাপনকারীদের মধ্যে যারা পশ্চিম তীরে বেসামরিক নাগরিকদের (ফিলিস্তিনিদের) ওপর সহিংসতা পরিচালনা করে, যুক্তরাষ্ট্র তাদের ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা দিতে প্রস্তুত।

শনিবার ওয়াশিংটন পোস্টে বাইডেনের লেখাটি প্রকাশিত হয়। তিনি লিখেছেন, যুদ্ধের পর গাজাকে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের হাতেই রাখার পক্ষে তারা। সেখানে ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষের নিয়ন্ত্রণ মানে না যুক্তরাষ্ট্র। এটি ঠিক রাখতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে সহিংসতা বন্ধ করার আহ্বান জানান বাইডেন। তার লেখায় বলেছেন, পশ্চিম তীর এবং গাজায় ফিলিস্তিনিদের জন্য একটি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ যুক্তরাষ্ট্র।মার্কিন প্রেসিডেন্ট লিখেছেন, এটা অনেকটাই স্পষ্ট। ইসরায়েলি এবং ফিলিস্তিনি উভয় জনগণের দীর্ঘমেয়াদী নিরাপত্তা নিশ্চিত করার একমাত্র উপায় হলো দ্বি-রাষ্ট্র সমাধান।

বাইডেন লিখেছেন, ‘আমি ইসরায়েলের নেতাদের সাথে জোর দিয়েছি যে পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে চরমপন্থী সহিংসতা বন্ধ করতে হবে এবং যারা সহিংসতা করছে তাদের অবশ্যই জবাবদিহি করতে হবে। যুক্তরাষ্ট্র পশ্চিম তীরে বেসামরিক নাগরিকদের উপর হামলাকারী চরমপন্থীদের বিরুদ্ধে ভিসা নিষেধাজ্ঞা জারিসহ নিজস্ব পদক্ষেপ নিতে প্রস্তুত।

পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনিদের প্রতি ইসরায়েলিদের হামলার বিষয়টি মানতে না পারলেও গাজায় যুদ্ধবিরতি দিতে রাজি নন বাইডেন। গত ৭ অক্টোবর থেকে গাজায় নির্বিচারে হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েল। সেখানে হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এদের বেশিরভাগই নারী ও শিশু। আবাসিক এলাকা, স্কুল, খাদ্য গুদাম, হাসপাতাল কোনোকিছুই ইসরায়েলের হামলা থেকে রক্ষা পায়নি।

বাইডেন এর আগেও ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে কয়েক দশক ধরে চলমান উত্তেজনার দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানকে সমর্থন করেছেন। গত মাসে তেল আবিবে এক ভাষণে বাইডেন বলেন, আমাদের অবশ্যই একটি পথ অনুসরণ করতে হবে যাতে ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিনি জনগণ উভয়ই নিরাপদে, মর্যাদায় এবং শান্তিতে বসবাস করতে পারে। আমার জন্য, এর অর্থ হল একটি দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধান।’

শনিবার ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইসরায়েলি হামলায় গাজায় নিহত ফিলিস্তিনিদের সংখ্যা ১২ হাজার ছাড়িয়েছে।গাজার সরকারি স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, ৭ অক্টোবর থেকে গাজায় ইসরায়েলি হামলায় নিহত ফিলিস্তিনিদের মধ্যে পাঁচ হাজার জন শিশু এবং  তিন হাজার ৩০০ জন নারী।

ফিলিস্তিনি তথ্য কেন্দ্র জানিয়েছে, এক হাজার ৮০০ শিশু-সহ আরও তিন হাজার ৫৭০ জন নারী নিখোঁজ রয়েছেন।ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ইসরায়েলিরা এক হাজার ২৭০টি গণহত্যা চালিয়েছে। তারা মোট ২০০ চিকিৎসক, ২২ জন ফায়ার সার্ভিস কর্মী এবং ৫১ জন সাংবাদিককে হত্যা করেছে।তাদের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইসরায়েলি আগ্রাসনে ২৫টি হাসপাতাল এবং ৫২টি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র বন্ধ হয়ে গেছে। ইসরায়েলের সেনাবাহিনী ৫৫টি অ্যাম্বুলেন্সে হামলা করেছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.

Design & Developed BY N Host BD