শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৫২ অপরাহ্ন

ধূমপায়ীর ফুসফুস পরিষ্কারের যেসব উপায়

নিউজ ডেস্কঃ ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। তবে কয়জন মানেন এই কথাটি! অনেকেই আছেন যারা শত চেষ্টা করেও ধূমপানের আসক্তি ছাড়তে পারেন না। তবে এখন ভালো থাকলেও দীর্ঘদিনের এই ক্ষতিকর অভ্যাসে ফুসফুস তার কার্যকারিতা হারাতে পারে।

ধূমপান ফুসফুসের ক্যানসারের অন্যতম কারণ। বিশ্বব্যাপী প্রতিবছর হাজারও মানুষ ধূমপানের কারণে ফুসফুসের বিভিন্ন অসুখে আক্রান্ত হচ্ছেন এমনকি মারাও যাচ্ছেন। আবার পরোক্ষ ধূমপানের কারণেও পরিবেশ দূষিত হচ্ছে ও অধূমপায়ীরাও নানা অসুখে ভুগছেন।

যারা ধূমপান করেন তাদের ফুসফুসে নিকোটিনসহ দূষিত পদার্থ জমে। এর অন্যতম কারণ বায়ুদূষণ। ফুসফুসে জমা দূষিত পদার্থ পরবর্তীতে শ্বাসকষ্টের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এমনকি ক্যানসারের মতো অসুখের আশঙ্কাও অনেকাংশে বাড়িয়ে দেয় এসব দূষিত বস্তু।

তবে যদি কেউ ধূমপান করা বন্ধ করে দেন তাহলে ফুসফুস নিজে থেকে অতীতের সব ক্ষতি পুষিয়ে নেয়। এতে ফুসফুসের নানা অসুখের সম্ভাবনাও কমে যায়। একইসঙ্গে কিছু খাবার আছে যেগুলো খেলে ধূমপায়ীর ফুসফুসে জমা নিকোটিন আস্তে আস্তে পরিষ্কার হতে থাকে। জেনে নিন কী কী খাবেন-

আনারসের স্বাস্থ্য উপকারিতার কথা সবারই জানা। ফুসফুসে জমা নিকোটিন বা অন্যান্য দূষিত পদার্থ পরিষ্কার করতে পারে আনারস। তাই ফুসফুসের স্বাস্থ্য ফেরাতে নিয়মিত এই ফলটি খান।

গ্রিন টি শারীরিক বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করে। এই চায়ে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকে। শুধু ফুসফুস নয় নিয়মিত গ্রিন টি খেলে শরীরের সব ধরনের দূষিত পদার্থ পরিষ্কার হয়ে যায়।

সর্দি-কাশি থেকে শুরু করে শরীরের বিভিন্ন প্রদাহ মুহূর্তেই সারিয়ে তোলে আদায় থাকা পুষ্টিগুণ। আদা পুরো শ্বাসযন্ত্রেরই উপকার করে। ফুসফুস পরিষ্কার করতে দিনে অন্তত একবার কাঁচা আদা চিবিয়ে এর রস খান। এছাড়াও আদা চা তৈরি করে খেতে পারেন।

গাজরে বিটা ক্যারোটিন ও ভিটামিন এ প্রচুর পরিমাণে থাকে। ফুসফুস পরিষ্কারের কার্যকরী দাওয়াই এটি। প্রতিদিন অন্তত দু’গ্লাস করে এই রস খেলে ফুসফুস দূষণমুক্ত হয়।

খাদ্যতালিকায় এসব খাবার রাখার পাশাপাশি নিয়মিত শরীরচর্চা করতে হবে। এতে ফুসফুসের কার্যকারিতা অনেক বেড়ে যাবে। জানেন কি? ফুসফুসের জন্য দুগ্ধজাতীয় খাবার মোটেও ভালো নয়।

ফুসফুসের কার্যক্ষমতা কেমিয়ে দেয় দুধের তৈরি বিভিন্ন খাবর। তাই ফুসফুসের কোনো অসুখ থাকলে অবশ্যই দুগ্ধজাত খাবার খাওয়ার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

সূত্র: ইন্ডিয়া টাইমস


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Design & Developed BY N Host BD