শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৪১ অপরাহ্ন

পেঁপে খেলে যাদের ক্ষতি হতে পারে

নিউজ ডেস্কঃ পেঁপের অনেক স্বাস্থ্যগুণ আছে। হাজারও সমস্যার সমাধান ঘটায় এই ফলটি। কাঁচা ও পাকা দুই অবস্থাতেই পেঁপে খাওয়া যায়। পেঁপেতে থাকে কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন, ফোলেট, ভিটামিন এ, ম্যাগনেসিয়াম, তামা, প্যানথোনিক অ্যাসিড ও প্রচুর ফাইবার।

এছাড়াও পেঁপে ভিটামিন সি’র একটি দুর্দান্ত উৎস। পেঁপেতে আরও থাকে ভিটামিন বি, আলফা ও বিটা-ক্যারোটিন, লুটেইন ও জেক্সানথিন, ভিটামিন ই, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম ও ভিটামিন কে।

পেঁপেতে লাইকোপেন থাকে, যা শক্তিশালী এক অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। তবে জানলে অবাক হবেন, অনেক গুণের পেঁপে খেলেও হতে পারে বিপদ। কারণ সবার শরীরের জন্য উপকারী নয় এই ফলটি।

বিশেষ করে কয়েকটি শারীরিক সমস্যায় যারা ভুগছেন তাদের জন্য পেঁপে হতে পারে মারাত্মক বিপদের কারণ। জেনে নিন কোন কোন ক্ষেত্রে পেঁপে খাওয়া বিপজ্জনক?

ইউএস ন্যাশনাল লাইব্রেরি অব মেডিসিনের মতে, শরীরের রক্ত পাতলা করার ওষুধের সঙ্গে কখনও পেঁপে খাবেন না। এতে সহজেই রক্তপাত ও ক্ষতের সৃষ্টি হতে পারে।

অতিরিক্ত পেঁপে খেলে বদহজম ও পেটের সমস্যা দেখা দিতে পারে। পেঁপেতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে। তাই অতিরিক্ত ব্যবহারে পেটে জ্বালা, ব্যথা এবং অস্বস্তির কারণ হতে পারে। আবার কারও কারও ক্ষেত্রে ডায়রিয়ারও হতে পারে।

এক বছরের কম বয়সের শিশুদের পেঁপে খাওয়ানো উচিত নয়। এতে তাদের হজমের সমস্যা হতে পারে।

শ্বাসকষ্টের সমস্যয় যারা ভুগছেন তারা অবশ্যই পেঁপে এড়িয়ে চলুন। পেঁপে শ্বাসকষ্টের কারণ হতে পারে। কারণ এর একটি উপাদান কারও কারও শরীরে অ্যালার্জির সৃষ্টি করে।

অনেকেই মনে করেন পেঁপে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী। জানলে অবাক হবেন, পেঁপে খেলে রক্তে শর্করার মাত্রার পরিবর্তন হতে পারে।

কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যায় অনেকেই ভুগে থাকেন। যাদের এই সমস্যা আছে তারা অবশ্যই পেঁপে এড়িয়ে চলুন। বেশি পেঁপে খেলে পেটে পানির পরিমাণ কমে যায়। এ কারণে সমস্যা বাড়ে।

যারা অ্যালার্জির সমস্যায় ভুগছেন তারা পেঁপে এড়িয়ে চলুন। কারণ পেঁপেতে চাইটানেস নামে এনজাইম থাকে। যা অ্যালার্জিযুক্ত ব্যক্তিদের শরীরে মারাত্মক প্রভাব ফেলে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা গর্ভবতীদের পেঁপে খাওয়া এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেন। কারণ পেঁপের বীজ, শিকড় ও পাতার মিশ্রণে ভ্রূণের ক্ষতি হতে পারে। পেঁপেতে থাকা পেপেইন উপাদান শরীরের নির্দিষ্ট কিছু ঝিল্লিতে ক্ষতি করতে পারে, যা ভ্রূণের বিকাশের জন্য অপরিহার্য।

সূত্র: মেডিকেল নিউজ টুডে/এনডিটিভি


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Design & Developed BY N Host BD