মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৪:৫২ পূর্বাহ্ন

সমালোচনায় হতাশ নন ফার্নান্দেজ

নিউজ ডেস্কঃ দল ছিল পিছিয়ে, নিজে পেনাল্টি না নিয়ে স্বদেশিকে সুযোগ দিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। কিন্তু বল উড়িয়ে মেরে খলনায়কে পরিণত হলেন পর্তুগিজ মিডফিল্ডার ব্রুনো ফার্নান্দেস। দলকে এভাবে বিপদে ফেলায় হতাশা থাকলেও ফার্নান্দেসের বিশ্বাস, সামনে দলের জয়ে রাখতে পারবেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে শনিবার অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে ১-০ গোলে হারে উলে গুনার সুলশারের দল। ২০০৯ সালের পর ঘরের মাঠে দলটির বিপক্ষে এটিই ইউনাইটেডের প্রথম পরাজয়।

ম্যাচের ৮৮তম মিনিটে কোর্টনি হাউসের গোলে এগিয়ে যায় সফরকারীরা। এরপর যোগ করা সময়ে নিজেদের বক্সে এডিনসন কাভানির হেডে বল হাউসের হাতে লাগলে পেনাল্টি পায় ইউনাইটেড। ক্লাব ও জাতীয় দলে পেনাল্টির জন্য প্রথম পছন্দ রোনালদো এবার দায়িত্বটা দেন গত মৌসুমে ইউনাইটেডের সর্বোচ্চ গোলদাতা ফার্নান্দেজকে।

কিন্তু ক্রসবারের অনেক ওপর দিয়ে উড়িয়ে মারেন ২৭ বছর বয়সী এই ফুটবলার। ফলে এবারের প্রিমিয়ার লিগে প্রথম হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় ম্যানচেষ্টারের দলটিকে।

ম্যাচ শেষে ইনস্টাগ্রামে ফের্নান্দেস বলেন, দলের ভীষণ প্রয়োজনের সময় সাড়া না দিতে পারায় তিনি হতাশ। তবে সমালোচনায় ভেঙে না পড়ে এটিকে খেলার অংশ হিসেবে দেখছেন তিনি।

লেখেন, ‘পেনাল্টি মিস করায় এবং এর ফলে দল হেরে যাওয়ায় আমার চেয়ে বেশি হতাশ আর কেউ নয়। সমালোচনা ও বিপরীতমুখী মতামত ফুটবলের একটি বড় অংশ। আমি এর সঙ্গে মানিয়ে নিতে শিখেছি, এমনকি সেগুলোকে আমি সামনে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা হিসেবে নিই।’

তিনি আরও লেখেন, ‘আমি আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরে আসব, কারণ আমি নিজেও একটা মানদণ্ড ঠিক করে রেখেছি। তবে ভালোভাবে ফেরার তাড়নাটা সবচেয়ে বেশি আমার সতীর্থ ও ভক্ত-সমর্থকদের জন্য, যারা সবসময় আমাদের সমর্থন করেছেন।’

ছয় ম্যাচে ৪ জয় ও এক ড্রয়ে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে চারে আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। সমান ম্যাচে তিন জয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে সাতে অ্যাস্টন ভিলা।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Design & Developed BY N Host BD