বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১২:১৫ পূর্বাহ্ন

সিঙ্গেলরাই শারীরিকভাবে বেশি সুস্থ থাকেন: গবেষণা

নিউজ ডেস্কঃ সঙ্গী থাকা স্বাস্থ্য ও মন দুটোর জন্য ভালো। বিভিন্ন গবেষণায় দেখানো হয়েছে, বিবাহিতরা স্বাস্থ্যগত বিভিন্ন সুবিধা পান। তবে জানলে অবাক হবেন সিঙ্গেল বা একা থাকারও আছে অনেক স্বাস্থ্য উপকারিতা।

অনেকেরই ধারণা, একা থাকলে মানুষের হতাশা বাড়ে ও কর্মস্পৃহা কমে। এ ধারণা একদম ভুল, কারণ গবেষণা বলছে যারা একা থাকেন তারাই বরং বেশি ভালোভাবে বাঁচেন।

যদিও বা জীবনে চলার পথে একজন ভালোবাসার মানুষকে পাশে পাওয়াও অনেক জরুরি। বিভিন্ন বিপদ, অসুখ, ভালো-মন্দের বিষয়ে কথা বলা কিংবা সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রেও একজন সঙ্গীর প্রয়োজন হয়।

তবে যাদের সঙ্গী নেই, তারা কী দুঃখে কষ্টে জর্জরিত হয়ে বাঁচবেন? মোটেও নয়, কারণ বিভিন্ন গবেষণা বলছে সিঙ্গেলরাই বেশি স্বাধীন জীবন কাটান মিঙ্গেলদের তুলনায়। এমনকি একা থাকার কারণে তারা স্বাস্থ্যগত বিভিন্ন সুবিধাও ভোগ করেন। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক-

এ বিষয়ে ভারতের লখনউয়ের হেলথকেয়ার ক্লিনিকের ক্লিনিকেল সাইকোলজিস্ট ডা. তনু চৌধুরী ২০১৫ সালের এক সমীক্ষা অনুসারে জানান, বিবাহিতদের তুলনায় অবিবাহিতরা বন্ধু ও পরিবারকে বেশি সময় দিতে পারেন। এছাড়া তাদের নেটওয়ার্কও ভালো। যারা সঙ্গী ছাড়া আছেন তারা নিজের কাজ ও পরিবারের বিষয়ে অন্যদের চেয়ে বেশি যত্নশীল ও মনোযোগী।

জীবনে চাপ কম থাকে

সিঙ্গেলদের জীবনে চাপ কম থাকে। এটি কেবল সম্পর্কের কারণে নয়, আর্থিকভঅবে তারা চাপমুক্ত থাকেন বিবাহিতদের তুলনায়। অবিবাহিত নিজের জন্য ও পরিবারের জন্য উপার্জন করেন।

অন্যদিকে বিবাহিতরা নিজ সংসারের চাপে পড়ে কেবল উপার্জন নিয়েই ভাবেন। এতে মানসিক চাপ বাড়ে। আবার সিঙ্গেলরা আর্থিকভাবে চাপমুক্ত থাকায় মানসিকভাবেও সুস্থ থাকেন।

জিমে যোগদানের হার বেশি

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথের সাম্প্রতিক এক সমীক্ষা অনুসারে, সিঙ্গেলদের জিমে যোগদানের হার সবচেয়ে বেশি।বিশেষ করে পুরুষরা যখন অবিবাহিত থাকেন, তখন তারা স্বাস্থ্য সম্পর্কে আরও সচেতন থাকেন। এতে কার্ডিয়াক সমস্যা, স্থূলতা ও শারীরিক বিভিন্ন সমস্যা থেকে মুক্ত থাকেন সিঙ্গেলরা।

ভালো ঘুম হয়

ঘুম স্বাস্থ্যের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ভালো ঘুমের জন্য ঘরের পরিবেশও স্বস্তিদায়ক হওয়া উচিত। যদিও বিবাহিতরা সঙ্গীর সঙ্গে বিছানা ভাগাভাগি করে নেন। তবে অনেকেই পাশে কেউ থাকলে ভালোভাবে ঘুমাতে পারেন না। তবে এদিক দিয়ে সিঙ্গেলরা নিশ্চিন্তে থাকেন। তারা নিশ্চিন্তে গভীরভাবে ঘুমাতে পারেন।

নিজের জন্য বেশি সময় পাওয়া যায়

আপনি যখন কোনো সম্পর্কের মধ্যে থাকেন, তখন বারবার সঙ্গীর খোঁজ নিতে হবে ও সেই অনুযায়ী সময় বের করতে হবে। সবদিক বিবেচনা করে নিজের জন্য সময় বের করা বেশ মুশকিল হয়ে উঠবে। তবে আপনি একা হলে এ বিষয় নিয়ে বেশি চিন্তা করতে হবে না। যা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো।

স্বাধীনভাবে চলাফেরা করা যায়

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, নারীরা বিয়ের আগেই বেশি সুখী থাকেন। এটি পুরুষদের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। সিঙ্গেল থাকা অবস্থায় পুরুষরা তুলনামূলকভাবে নারীর চেয়ে বেশি স্বাধীনভাবে চলাফেরা করতে পারেন। ফলে তারা বেশি সুখীও থাকেন। তাই সিঙ্গেলরা সময় মন খারাপ না করে বরং স্বাধীনভাবে দিন কাটান।

আজ বিশ্ব সিঙ্গেল ডে। প্রতিবছর ১১ নভেম্বর তারিখটি শুধুই সিঙ্গেলদের জন্য। এই দিবসের উদ্ভব চীনের নানজিং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে।

সূত্র: অনলি মাই হেলথ


Leave a Reply

Your email address will not be published.

Design & Developed BY N Host BD